Home / Uncategorized / কিম জংয়ের অজানা জীবন

কিম জংয়ের অজানা জীবন

কিম জংয়ের অজানা জীবন

অনলাইন ডেস্ক
০৮ মে ২০১৭, ০৮:০০
 উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। ওয়ার্কার্স পার্টি অব কোরিয়ার ফার্স্ট সেক্রেটারি, উত্তর কোরিয়ার কেন্দ্রীয় সেনা কমিশন ও জাতীয় প্রতিরক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান এবং কোরিয়ান পিপলস আর্মির সুপ্রিম কমান্ডার। গত বছরে উত্তর কোরিয়ার প্রথম হাইড্রোজেন বোমার সফল পরীক্ষা চালানোর নেপথ্যের ব্যক্তিও তিনি। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হুমকি, চাপ, ভাবনা নিয়ে তাঁর তেমন মাথাব্যথা নেই। এখন পর্যন্ত বিশ্বনেতাদের বুড়ো আঙুল দেখাতে কার্পণ্য করেননি তিনি। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। যুক্তরাষ্ট্র দেশটিতে হামলা চালানোর হুমকিও দিয়েছেন। সেই কিম জং-উন পারমাণবিক বোমা নিয়ে যখন বিশ্ব গণমাধ্যমের আলোচনায় থাকেন না, তখন তিনি কী করেন, তা নিয়ে এবারের প্রতিবেদন—
 

 

 

 

 

.সাবেক বাস্কেট বল তারকা ডেনিস রডম্যানের সঙ্গে গল্পে মশগুল কিম জং-উন। ২০১৩ সালে দেশটিতে গিয়েছিলেন রডম্যান। ছবি: রয়টার্সসাবেক বাস্কেট বল তারকা ডেনিস রডম্যানের সঙ্গে গল্পে মশগুল কিম জং-উন। ২০১৩ সালে দেশটিতে গিয়েছিলেন রডম্যান। ছবি: রয়টার্সকিম জং-উন আনন্দদানকারী

কিম জং-উন এখন ডোনাল্ড ট্রাম্পকেও পরোয়া করেন না। বিশ্বের সবচেয়ে রহস্যময়, হেঁয়ালি এবং অনিশ্চিত একজন ব্যক্তি কিম, যার সম্পর্কে আগাম কোনো কিছুই বলা যায় না। এই নেতা ভালোবাসেন অন্যকে আনন্দ দিতে। লোকটি অর্থাৎ কিম সজ্জিত প্রাসাদে থাকেন, যেখানে অন্যকে আতিথেয়তা দিতে এবং নিতে পছন্দ করেন।

সময় কাটান প্রমোদতরিতে
অবসরে প্রমোদতরিতে সময় কাটান কিম। উত্তর কোরিয়ার উপকূল এলাকায় ২০০ ফিট একটি প্রমোদতরি রয়েছে কিমের। এরই পাশে থিম পার্ক এবং আছে একটি ফুটবল মাঠও। এখানেই ২০১৩ সালে সাবেক বাস্কেট বল তারকা ডেনিস রডম্যান এসেছিলেন। এ জায়গায় অবসর সময় কাটান কিম। এটিকে কিমের জলে বিনোদন ক্ষেত্র বলা হয়।

 

সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে কিম জং-উন। ছবি: রয়টার্সসেনাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে কিম জং-উন। ছবি: রয়টার্সপ্রিয় খেলা বাস্কেট বল
কিমের প্রিয় খেলা বাস্কেট বল। এটা জানা যায় উত্তর কোরিয়া ঘোরার পর রডম্যানের এক মন্তব্যে থেকে। কিম জংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে দ্য সানকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ডেনিস রডম্যান বলেন, কিম জং-উনের মধ্য খেলার চেতনা রয়েছে। কিমের মধ্য রয়েছে বাস্কেট বলের প্রতি চরম আসক্তি।পছন্দ করেন সঙ্গী-সাথি নিয়ে থাকতে
একা একা নয় সঙ্গী-সাথি নিয়ে থাকতে পছন্দ করেন কিম জং-উন। জং সব সময় তাঁর চারপাশে ৫০ থেকে ৬০ জন লোক নিয়ে থাকতে পছন্দ করেন। আর তিনি সঙ্গী-সাথিকে নিয়ে ধূমপান, পানীয় এবং হাসি-গল্পে সময় কাটান।

 

3″>উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। ছবি: রয়টার্সউত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। ছবি: রয়টার্সকিম খোঁজেন সেরাটাই
কিমই সেরা। ধূমপানেও তাই। তিনি এ ক্ষেত্রেও সেরাটাই খোঁজেন। তিনি মানের ক্ষেত্রে কখনো আপস করেন না। তিনি টেকিউলা নামের মেক্সিকান একটি ভদকার ভক্ত। আর কিমের ক্ষেত্রে সব সময় বলা হয়, ‘কোনো কিছুই না কিন্তু তিনিই সেরা।’ 

কিমের একটি ব্যক্তিগত রেলওয়ে স্টেশনও রয়েছে-আছে বিমানবন্দরও। ছবি: রয়টার্সকিমের একটি ব্যক্তিগত রেলওয়ে স্টেশনও রয়েছে-আছে বিমানবন্দরও। ছবি: রয়টার্সআছে ব্যক্তিগত রেলস্টেশন-বিমানবন্দর
যেভাবে জীবন যাপন করেন, তা জানলে যে কেউ চাইবেন কিমের মতো করে জীবন যাপন করতে। কারণ, কিমের অতিথি হলে চলাচলের জন্য মিলবে মার্সিডিজ গাড়ি এবং বেসরকারি নিরাপত্তা বাহিনীর নিরাপত্তা। তার একটি ব্যক্তিগত রেলওয়ে স্টেশনও রয়েছে—আছে বিমানবন্দরও। 

image-5″>কিম জং-উন একজন পুলপ্রেমী মানুষ। ছবি: রয়টার্সকিম জং-উন একজন পুলপ্রেমী মানুষ। ছবি: রয়টার্সপুলপ্রেমী কিম জং-উন
কিম জং-উন একজন পুলপ্রেমী মানুষ। পার্টি করা যায়, এমন ২০০ ফিট লম্বা একটি নৌকা আছে কিমের। চারপাশে পানিবেষ্টিত এ জায়গাটির খবর অনেকে জানেন না। বিনোদন পার্ক তাঁর খুব পছন্দ। 

এই তিনটি দ্বীপে নিয়মিত যাতায়াত করেন কিম। ছবি: রয়টার্সএই তিনটি দ্বীপে নিয়মিত যাতায়াত করেন কিম। ছবি: রয়টার্সপার্টিতে মজেন কিম
পার্টিতে কখনো বিরক্ত হন না কিম জং-উন। তিনি এ জন্য ব্যক্তিগত তিনটি দ্বীপে মাঝেমধ্যেই যাতায়াত করেন। আর দ্বীপ তিনটি উপকূল থেকে ৩৫ মাইল দূরে অবস্থিত। সেখানে কিম নৌবহরে যাতায়াত করেন। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এখানে যাতায়াত কিম জং সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন। তথ্যসূত্র: ইকোনমিক টাইমস।

About Rajibnaba

Check Also

রাজশাহীর সেরা বিশেসজ্ঞ ডাক্তার দের ঠিকানা

ডাক্তার/বিশেষজ্ঞ প্রতিষ্ঠানের নাম বিভাগ ফোন নম্বর ডা: সমীর মজুমদার ডাক্তার/বিশেষজ্ঞ ০১৭১১১৪৫১৩৬ ডাঃ এ আর এম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *